দু’টি মূল্যবান কালেমা যা মহান আল্লাহ’র কাছে অত্যন্ত প্রিয়। জেনে নিন বিস্তারিত…

আমাদের প্রিয় নবী হজরত মুহাম্মদ (সা.) বলেছেন, দুটি কালেমা আল্লাহর কাছে অত্যন্ত প্রিয়। হজরত আবু হুরায়রা (রা.) থেকে বর্ণিত, তিনি বলেন, রাসুল (সা.) বলেন, দুটি বাক্য এমন রয়েছে, যা বলা সহজ, আমলের পাল্লায় অনেক ভারী, আর আল্লাহর কাছেও অধিক পছন্দনীয়। সেটি হলো, ‘সুবহানাল্লাহি ওয়া বিহামদিহি সুবহানাল্লাহিল আজিম।’ (বুখারি : ৬৪০৬)

কালেমা দুটি বড় দামি ও অনেক ভারী। শেষ বিচারের দিন মানুষের আমলনামা মাপ দেওয়া হবে, পাল্লা ধরে দাঁড়িয়ে থাকবেন হজরত জিব্রাঈল আলাইহিস সালাম। কারণ মানুষের কাছে রিজিক পৌঁছে দেওয়ার জন্য তাকে জিম্মাদারি দেওয়া হয়েছিল, যাতে কেউ এই অভিযোগ উত্থাপন করতে না পারে যে, আমার কাছে যথাযথ রিজিক পৌঁছেনি। হজরত জিব্রাইল (আ.) দ্বারা পৃথিবীতে দিলের খাদ্য কুরআনের ইলম পাঠানো হয়েছিল, সে ইলম জিব্রাঈল আলাইহিস সালাম যথাযথভাবে পৌঁছিয়েছেন। সে ব্যাপারে যেন কেউ কোনো প্রকারের অভিযোগ উত্থাপন করতে না পারে, সে জন্য হজরত জিব্রাইল (আ.)  কে কাছে দাঁড় করিয়ে রাখা হবে।

আল্লাহপাক হজরত মুহাম্মদকেও (সা.)পাল্লার পাশে দাঁড় করিয়ে বলবেন, হে নবী! আপনি লক্ষ্য করুন, আপনার উম্মতের ওপর আমি জুলুম করছি কিনা? মাপ দেওয়ার সময় কারও নেকির পাল্লা ভারী হবে, কারও গোনাহের পাল্লা ভারী হবে। কারও নেকি ও বদ আমলের পাল্লাহ সমান সমান হবে। সেখানে যার আমলনামায় উপরোক্ত দুটি কালেমা থাকবে, তার নেকীর পাল্লা ভারী হয়ে তার জন্য জান্নাতের ফায়সালা হবে। কুরআনে কারিমে ইরশাদ হয়েছে : যার নেকির পাল্লা ভারী হবে সে জান্নাতে যাবে; আর যার বদির পাল্লা ভারী হবে সে জাহান্নামে যাবে।

নিয়মিত আপডেট পেতে লাইক দিয়ে আমাদের সাথে থাকুন