দার উল ইসলাম বা দার উল কুফর কী? জেনে নিন

প্রথমত, দার উল ইসলাম বলতে আসলে কী বোঝায়, আর দার উল কুফরই বা আসলে কী, এগুলোর সংজ্ঞা বিভিন্ন মতবাদের আলেমরা বিভিন্নভাবে দিয়েছেন। একইসাথে বিভিন্ন ধরনের ‘দার’-এ মুসলিমদের জন্য থাকা বৈধ, কি বৈধ না, এনিয়ে বিভিন্ন মতবাদে বিভিন্ন নিয়ম দেওয়া হয়েছে। এনিয়ে বিস্তারিত পরে আলোচনা করা হলো। আমাদেরকে মনে রাখতে হবে, এই দার-গুলোর সংজ্ঞা একাধিক মতবাদ একবাক্যে মেনে নেয়নি, তাদের মধ্যে যথেষ্ট সুক্ষ মতভেদ রয়েছে। সেই মতভেদগুলো যদি আমরা উপেক্ষা করে পুরো পৃথিবীকে সাদা-কালো মনে করা শুরু করি, তাহলে অজস্র প্রশ্নের কোনো উত্তর দেওয়া যাবে না। একইসাথে আমরা দেখতে পাই: একই মতবাদের অনুসারী আলেমদের ভেতরেও দার উল ইসলাম এবং দার উল হারবের সংজ্ঞা নিয়ে মতভেদ হয়েছে, এবং পরবর্তী প্রজন্মের আলেমরা পূর্বের প্রজন্মের আলেমদের মতকে পরিমার্জন করেছেন প্রেক্ষাপটের পরিবর্তনকে বিবেচনা করে।

আমাদের মনে রাখতে হবে, দার উল ইসলাম, দার উল কুফর ইত্যাদির সংজ্ঞা কোনোটাই কুর’আন বা হাদিসে নেই। এগুলো সবই বিভিন্ন প্রসিদ্ধ আলেমদের ইজতিহাদ অর্থাৎ নিজেদের গবেষণা থেকে পৌঁছান সিদ্ধান্তের উপর ভিত্তি করে উপস্থাপন করা। একই সাথে এটাও মনে রাখতে হবে যে, এই ইজতিহাদ তারা করেছেন তাদের সময়কার প্রেক্ষাপট অনুসারে। একইভাবে ‘দার’ বলতে যে দেশ বোঝায়, সেটাও নির্দিষ্ট নয়। ‘দার’ কোনো শহর, কোনো এলাকা, এমনকি কারো বাড়িও হতে পারে।[৩৫১]

নিয়মিত আপডেট পেতে লাইক দিয়ে আমাদের সাথে থাকুন