ফজরের স্বলাতের জামাআত চলা অবস্থায় সুন্নাত পড়তে থাকা

ইক্বামত হওয়ার পর এবং রীতি মত জামা‘আত চলছে এমতাবস্থায় বহু মসজিদে ফজর স্বলাতের সুন্নাত আদায় করতে দেখা যায়। মাওলানা মুহিউদ্দীন খান লিখেছেন, ‘জামাআত শুরু হওয়ার পর কোন নফল স্বলাত শুরু করা জায়েয নয়। তবে ফজরের সুন্নত এর ব্যতিক্রম’।[1] অথচ উক্ত দাবী সুন্নাত বিরোধী। কারণ যখন ফরয স্বলাতের ইক্বামত হয়ে যায়, তখন সুন্নাত পড়া যাবে না। ফজরের স্বলাতের জামাআত

عَنْ أَبِىْ هُرَيْرَةَ عَنِ النَّبِىِّ قَالَ إِذَا أُقِيْمَتِ الصَّلاَةُ فَلاَ صَلاَةَ إِلاَّ الْمَكْتُوْبَةُ.

আবু হুরায়রাহ (রাঃ) থেকে বর্ণিত, নবী (ﷺ) বলেন, ‘যখন স্বলাতের ইক্বামত দেওয়া হবে তখন ফরয স্বলাত ব্যতীত আর কোন স্বলাত নেই’।[2]

উল্লেখ্য যে, ‘ফজর স্বলাতের পর সূর্য উঠা পর্যন্ত স্বলাত নেই’[3] এই ব্যাপক ভিত্তিক হাদীছের আলোকে বলা হয়, ফজর স্বলাতের সুন্নাত আগে পড়তে না পারলে, সূর্য উঠার পর পড়তে হবে। সেকারণ উক্ত আমল সমাজে চালু আছে। অথচ উক্ত হাদীছের উদ্দেশ্য অন্য যেকোন স্বলাত। কারণ ফজরের পূর্বে সুন্নাত পড়তে না পারলে স্বলাতের পরপরই পড়ে নেয়া যায়। উক্ত মর্মে স্পষ্ট সহিহ হাদীছ বর্ণিত হয়েছে।

عَنْ قَيْسِ بْنِ عَمْرٍو قَالَ رَأَى رَسُوْلُ اللهِ رَجُلاً يُصَلِّى بَعْدَ صَلاَةِ الصُّبْحِ رَكْعَتَيْنِ فَقَالَ رَسُوْلُ اللهِ صَلاَةُ الصُّبْحِ رَكْعَتَانِ فَقَالَ الرَّجُلُ إِنِّىْ لَمْ أَكُنْ صَلَّيْتُ الرَّكْعَتَيْنِ اللَّتَيْنِ قَبْلَهُمَا فَصَلَّيْتُهُمَا الآنَ فَسَكَتَ رَسُوْلُ اللهِ .

ক্বায়েস ইবনু ‘আমর (রাঃ) বলেন, রাসূল (ﷺ) একদা ফজরের স্বলাতের পর এক ব্যক্তিকে দুই রাক‘আত স্বলাত আদায় করতে দেখলেন। তখন তিনি বললেন, ফজরের স্বলাত দুই রাক‘আত। তখন ঐ ব্যক্তি বলল, আমি ফজরের পূর্বের দুই রাক‘আত আদায় করিনি। তাই এখন সেই দুই রাক‘আত আদায় করলাম। অতঃপর রাসূল (ﷺ) চুপ থাকলেন।[4]

অতএব প্রচলিত অভ্যাস পরিত্যাগ করে সুন্নাতকে প্রাধান্য দিতে হবে। উল্লেখ্য যে, বহু মসজিদে লেখা থাকে লাল বাতি জ্বললে সুন্নাত পড়বেন না। উক্ত লেখা সুন্নাত বিরোধী হলেও সব স্বলাতের ক্ষেত্রে অনুসরণ করা হয়, কিন্তু ফজরের সুন্নাতের ব্যাপারে তা অনুসরণ করা হয় না। কারণ এটা সুন্নাত তাই।

নিয়মিত আপডেট পেতে লাইক দিয়ে আমাদের সাথে থাকুন