রোজ খান ১ টি আমলকি, পান ২০ টি উপকার!

উপকারি ফল আমলকী ত্বকের যত্নেও খুব কার্যকর। এতে রয়েছে ভিটামিন সি এবং অ্যান্টি অক্সিডেন্ট। আমলকীর রসের সঙ্গে আরও কিছু প্রাকৃতিক উপাদান মিশিয়ে মুখে মাখলে ত্বক থাকবে উজ্জ্বল ও সতেজ। এবার আমরা দেখে নেব কীভাবে অমলকী ত্বকের যত্নে কিভাবে কাজ করে।

১. ত্বকের উজ্জ্বলতা বাড়ে

শরীরে অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট এবং ভিটামিন সি-এর মাত্রা বাড়তে শুরু করলে ত্বকের ভেতরে কোলাজেনের মাত্রা বৃদ্ধি পেতে শুরু করে। আর আমলিকে হলো ভিটামিন সি-এর খনি। তাই তো এই ফলটি খেতে শুরু করলে স্বাভাবিকভাবেই ত্বকের উজ্জ্বলতা বাড়তে শুরু করে। আর যদি আমলকি দিয়ে বানানো ফেস প্যাক ব্যবহার করতে পারেন, তাহলে তো কথাই নেই। সেক্ষেত্রে আরও দ্রুত উপকার পাওয়া যায়। ফেস প্যাকটি বানাতে পরিমাণ মতো আমলার রসের সঙ্গে মধু মিশিয়ে মুখে লাগাতে শুরু করলে ভালো ফল পাওয়া যাবে।

২. ত্বকের বয়স কমবে

শরীরের বয়স বাড়লেও ত্বকে যেন বয়সের ছাপ না পড়ে এমনটা অনেকেই চান। এক্ষেত্রে আমলকী কেনো বিকল্প নেই। আর যদি কাঁচা অবস্থায় খেতে না পারেন, তাহলে জুস বানিয়ে খাওয়া শুরু করুন। দেখবেন এক সপ্তাহের মধ্যে ত্বকের সৌন্দর্য চোখে পরার মতো বৃদ্ধি পাবে। আমলকী খেলে শরীরের ভেতরে এমন কিছু পরিবর্তন হতে শুরু করে যে বলিরেখা দূর হয়। সেই সঙ্গে ত্বক এতটাই মসৃণ হয়ে ওঠে যে ত্বকের বয়স কমতে সময় লাগে না।

৩. দাগ কমায়

সারা মুখ কি ছোট ছোট কালো দাগে ভরে গেছে? তাহলে আজ থেকেই আমলকী খাওয়া শুরু করুন। সেই সঙ্গে তুলোর সাহায্যে অল্প অল্প করে আমলকীর রস মুখে লাগান। এমনটা নিয়মিত করতে থাকলে যে কোনো ধরনের দাগ দূর হবে।

৪. ত্বক ফর্সা ও নমনীয় করে

ফর্সা ত্বকের অধিকারী হতে কে না চায়। যদি আপনিও এমন স্বপ্ন দেখে থাকেন, তাহলে নিয়মিত আমলকি খেতে ভুলবেন না! কারণ একাধিক গবেষণায় দেখা গেছে, এই ফলটি খাওয়া মাত্রা ত্বকের ভেতরে কোলাজেনের উৎপাদন বেড়ে যেতে শুরু করে। আর যখন এমনটা হয়, তখন যে কেবলমাত্র ত্বক ফর্সা হয় তা নয়, সেই সঙ্গে ত্বক নরম হয়।

৫. ব্রণ কমে

আমলকি খাওয়ার পাশাপাশি এই ফলটি দিয়ে বানানো পেস্ট মুখে লাগাতে শুরু করলে ব্রণ কমে যায়। এমনতি ব্রণের দাগও দূর করে। আসলে আমলকীতে উপস্থিত অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট, রক্তে উপস্থিত টক্সিক উপাদানদের বের করে দেয়।

নিয়মিত আপডেট পেতে লাইক দিয়ে আমাদের সাথে থাকুন