ডায়বেটিসের জটিলতা প্রতিরোধে ভিটামিন

ডায়াবেটিস এমন একটি রোগ যা শরীরের প্রতিটি অঙ্গের উপর ক্ষতিকর প্রভাব ফেলে। অনিয়ন্ত্রিত ডায়াবেটিস থেকে দৃষ্টিহীনতা, কিডনীর সমস্যা, হৃদরোগের মত জটিলতা দেখা দিতে পারে। ডায়াবেটিসের চিকিৎসার মূল লক্ষ্য হল ওষুধ, খাদ্য নিয়ন্ত্রণ ও লাইফস্টাইল পরিবর্তনের মাধ্যমে রক্তে শর্করার মাত্রা স্বাভাবিক পর্যায়ে নিয়ে আসা। একই সাথে রোগের সম্ভাব্য জটিলতাগুলো প্রতিরোধ করাও খুবই গুরুত্বপূর্ণ।

ডায়াবেটিসে রক্তের শর্করার মাত্রা স্বাভাবিকের চেয়ে বেড়ে যায়, যা অতিরিক্ত প্রস্রাব তৈরী করে। আর এর সাথে শরীর থেকে বেরিয়ে যায় প্রয়োজনীয় অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট, ভিটামিন এবং খনিজ যেমন ম্যাগনেসিয়াম ও জিংক। শুধুমাত্র পানি খেয়ে এই ঘাটতি পূরণ হয়না, এমনকি রক্তে গ্লুকোজের মাত্রা নিয়ন্ত্রণে আনলেও পুষ্টিহীনতার প্রভাব পুরোপুরি কাটিয়ে ওঠা যায়না। তাই সঠিক খাদ্য গ্রহণের মাধ্যমে দেহে ভিটামিনের অভাব মেটানো ডায়াবেটিক রোগীর জন্য অত্যাবশ্যক।

আসুন দেখে নেই কোন কোন ভিটামিন ডায়াবেটিসের জটিলতা প্রতিরোধে সহায়ক-

# বায়োটিন- এই ভিটামিনটি প্রোটিন, ফ্যাট এবং কার্বোহাইড্রেট পরিপাকের জন্য প্রয়োজন। পাশাপাশি ডায়াবেটিসে ইনসুলিনের কার্যকারিতা কমে যেতে থাকে, বায়োটিন তা রোধ করে। এর ভালো উৎস হচ্ছে মাংস, মুরগী, কলিজা, ডিম, তাজা শাকসবজি, মাশরুম, ব্রকোলি ইত্যাদি।

# ভিটামিন বি৬, বি১২ এবং ফলিক এসিড- রক্তের অতিরিক্ত শর্করা নার্ভকে ক্ষতিগ্রস্থ করে, ফলে ডায়াবেটিক নিউরোপ্যাথি হতে পারে। নার্ভকে ভালো রাখতে চাই ভিটামিন বি৬ এবং বি১২। এছাড়া দেহে ভিটামিন বি৬ এর ঘাটতি থাকলে গ্লুকোজ ইনটলারেন্স হওয়ার সম্ভাবনা থাকে। এসব ভিটামিনের জন্য বেশী করে খেতে হবে মাছ, মাংস, ডিম এবং সয়া দুধ।

# ভিটামিন সি- এই ভিটামিন দেহে গ্লুকোজ তৈরীতে বাধা দেয়, ফলে ডায়াবেটিস ত্বরান্বিত হতে পারে না। এটি অ্যান্টি অক্সিডেন্ট হিসেবে কাজ করে এবং ডায়াবেটিক রোগীদের প্রদাহ কমায়। টক ফল যেমন কমলা, আনারস ও লেবুতে ভিটামিন সি থাকে।

# ভিটামিন ডি- ভিটামিন ডি হাড় ভালো রাখে। এছাড়া দেহের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতার উপর এর প্রভাব রয়েছে, এ কারণে টাইপ ১ ডায়াবেটিস প্রতিরোধেও সাহায্য করে। পাশাপাশি ইনসুলিনের কার্যক্ষমতা বাড়িয়ে এটি টাইপ ২ ডায়াবেটিসের জটিলতা ঠেকায়। ডিমের কুসুম ভিটামিন ডি এর সমৃদ্ধ উৎস।

# ভিটামিন ই- ডায়াবেটিস দেহে ফ্রি র‍্যাডিকেলের পরিমাণ বাড়িয়ে দেয়। ভিটামিন ই একটি অ্যান্টি অক্সিডেন্ট ভিটামিন যা শরীর থেকে অতিরিক্ত ফ্রি র‍্যাডিকেল বের করে দিতে ভূমিকা রাখে। আমন্ড বাদাম, পালং শাক, মিষ্টি আলু ইত্যাদি এই ভিটামিনে ভরপুর।

ডায়াবেটিসের জটিলতা প্রতিরোধে ভিটামিনের ঘাটতি পূরণের বিকল্প নেই। তবে ভিটামিন সমৃদ্ধ খাবার শুধু ডায়াবেটিক রোগীদের জন্য উপকারী তাই নয়, বরং এই স্ট্রেসযুক্ত জীবনে ভালো থাকতে আমাদের সবারই প্রয়োজন।

নিয়মিত আপডেট পেতে লাইক দিয়ে আমাদের সাথে থাকুন