আজরাঈল (আ) কে থাপ্পর মারার সেই কাহিনী

তখন তিনি আল্লাহ তাআলার নিকট আরজ করলেন, আপনি আমাকে এমন বান্দার নিকট প্রেরণ করেছেন যিনি মওত চান নাপৃথিবীর মানুষ যখন ভুল পথে ধাবিত হয় তখন মহান আল্লাহ তায়ালা এই পথভ্রষ্ট মানুষদের সঠিক পথে ফিরিয়ে আনার জন্য যুগে যুগে পয়গম্বর পাঠিয়েছেন। আল্লাহ তায়ালার পাঠানো পয়কম্বরের মধ্যে এমন আপনি জানেন কি কে আজরাঈলকে চড় মেরেছিলেন? দোযাহানের মধ্যে হযরত মূসা (আ)-ই একমাত্র ব্যক্তি যিনি আযরাঈল (আ)কে চড় মেরেছিল। মুসলমান হিসেবে আমরা কি সেই ঘটনাটি জানি? এ সংক্রন্ত একটি হাদিস নিচে বর্ণনা করা হলো-

হযরত আবু হুরায়রা রা. থেকে বর্ণিত হাদিসে আছে, রাসূল (স) বলেছেন, মালাকুল মাউত (জান কবজকারী ফেরেশতা) কে মূসা আ.-এর নিকট প্রেরণ করা হল। তিনি যখন এলেন তখন মূসা আ. তাকে জোরে থাপ্পড় মারলেন। যার ফলে মালাকুল মাউতের চক্ষু বের হয়ে পড়ল।তখন তিনি আল্লাহ তাআলার নিকট আরজ করলেন, আপনি আমাকে এমন বান্দার নিকট প্রেরণ করেছেন যিনি মওত চান না।

আল্লাহ তায়ালা তখন (নিজ কুদরতে) তার চক্ষু আপন স্থানে ফিরিয়ে দিয়ে বললেন, তুমি আবার যাও এবং তাকে বল-আপনি একটি ষাঁড়ের পিঠে হাত রাখুন।ঐ হাতের নিচে যত পশম পড়বে আপনি চাইলে এর প্রতিটি পশমের বিনিময়ে আপনার হায়াত এক বছর করে দীর্ঘায়িত হবে। মূসা আ. এ কথা শুনে বললেন, এরপর কী হবে? আল্লাহ তাআলা বললেন, মৃত্যুই আসবে।মূসা আ. বললেন, তাহলে এখনি মৃত্যু দিন।

(সহীহ বুখারী হাদীস : ৩৪০৭; সহীহ মুসলিম হাদীস : ২৩৭২ উল্লেখ্য, বিখ্যাত হাদীস-বিশারদগণ বলেন, মালাকুল মাওত মূসা আ.-এর অনুমতি না নিয়েই মানুষের বেশে তাঁর ঘরে প্রবেশ করেছিলেন। তখন তিনি তাকে না চিনতে পেরে বিনা অনুমতিতে ঘরে প্রবেশ করার কারণে চপেটাঘাত করেন।একজন নবী আছেন, যিনি সয়ং আজরাঈল (আ) কে চড় মেরেছিলেন।

নিয়মিত আপডেট পেতে লাইক দিয়ে আমাদের সাথে থাকুন