যে কারণে মানুষের নেক আমল নষ্ট হয়ে যায়

মুসলিম উম্মাহ অনেক ভালো কাজ করে, যার বিনিময়ে রয়েছে অনেক সাওয়াব ও প্রতিদান। কিন্তু সতর্কতার অভাবে তাদের নেক আমলগুলো নষ্ট হয়ে যায়। অনেকে চিন্তাই করে না যে এভাবে নেক আমলগুলো নষ্ট হয়ে যেতে পারে।

যে কারণে মানুষের নেক আমল নষ্ট হয়, তাহলো-

হিজাব পরিধান তথা পর্দা পালন করেন অথচ মেকআপ তথা সাজ-সজ্জার পাশাপাশি সুগন্ধি মেখে রাস্তায় বের হন। যে কারণে অন্য মানুষ আকৃষ্ট হয়।
দাঁড়ি রেখেছেন। অথচ রাস্তায় চলাফেরার সময় দৃষ্টি সংযত থাকে না।
ঠিক সময়ে নামাজ আদায় করেন কিন্তু নামাজে তাড়াহুড়ো করেন, ঠিকভাবে রুকু ও সেজদা আদায় করা হয় না।
মানুষের সামনে নম্র-ভদ্র ও সুন্দরভাবে কথা বলেন অথচ পরিবারের সদস্য স্ত্রী-সন্তানের সঙ্গে কর্কশ ভাষায় কথা বলেন এবং রূঢ় আচরণ করেন।
মেহমান আসলে তাদের সঙ্গে উত্তম আচরণ করেন ঠিকই কিন্তু এদের চলে যাওয়ার পর সমালোচনা করেন।
অসহায় গরিব ব্যক্তিদের দান করা সত্ত্বেও তাদের সঙ্গে খারাপ ব্যবহার করেন।

তাহাজ্জুদ নামাজ পড়েন, রোজা রাখেন, কুরআন তেলাওয়াত করেন অথচ নিকটাত্মীয়দের সঙ্গে সম্পর্ক ছিন্ন করেন।
সারাদিন রোজা রাখেন, ধৈর্যের সঙ্গে পানাহার থেকে বিরত থাকেন অথচ রোজা রেখে অন্যকে গালিগালাজ করতে দ্বিধাবোধ করেন। তাদেরকে কষ্ট দেন।
মানুষকে সাহায্য করেন অথচ এ ভালো কাজের জন্য বিনিময়ে বাহবা কিংবা প্রশংসার আশা করেন।
খ্যাতি কিংবা সুনাম লাভের আশায় অন্যকে ভালো উপদেশ দেন অথচ আল্লাহর অনুগ্রহ আশা করেন না। যা কোনোভাবেই কাম্য নয়।

সুতরাং মানুষ যে নেক আমলই করবে, তার বিপরীত কাজ থেকেও নিজেকে বিরত রাখবে। তবেই নেক আমলের পরিপূর্ণ সাওয়াব লাভ হবে। অন্যথায় মানুষের কষ্টের নেক আমলগুলো সামান্য অবহেলায় নষ্ট হয়ে যায়।

সে কারণে নেক কাজ শুধুমাত্র আল্লাহর সন্তুষ্টি বা কল্যাণ লাভের জন্য করাই উত্তম। আল্লাহর সন্তুষ্টির আশা থাকলে সে নেক আমল কবুল হয়ে যায়। যার বিনিময় লাভ করে প্রত্যেক আমলকারী। তাই নেক কাজ করার পাশাপাশি খারাপ কাজগুলো থেকে নিজেদেরকে বিরত রাখাও জরুরি। তবেই সুন্নতের পরিপূর্ণ অনুসরণ ও বাস্তবায়ন সম্ভব হবে।

আল্লাহ তাআলা মুসলিম উম্মাহকে উল্লেখিত নেক আমলগুলো করার সময় যথাযথ করণীয় মেনে চলার তাওফিক দান করুন। নিজেদেরকে নেক আমলের পাশাপাশি খারাপ চরিত্র থেকে হেফাজত করুন। আমিন।

নিয়মিত আপডেট পেতে লাইক দিয়ে আমাদের সাথে থাকুন