সবজি রান্নার হরেক ধরনের রেসিপি একসঙ্গে

আপনাদের জন্য এখন দেওয়া হচ্ছে স্বাস্থ্যসম্মত এবং মুখরোচক ১১টি রেসিপি। এ সবগুলো খাবারই তৈরি সবজি দিয়ে। দেখে নিন সবজি রান্নার হরেক ধরনের রেসিপি একসঙ্গে।

সবজির লাবড়া

উপকরণ:

মিষ্টি কুমড়া ১০০ গ্রাম,

বাঁধাকপি ১০০ গ্রাম,

ফুলকপি ১০০ গ্রাম,

গাজর ১০০ গ্রাম,

পটোল ১০০ গ্রাম,

চিচিঙ্গা ১০০ গ্রাম,

বরবটি ১০০ গ্রাম,

আলু ১০০ গ্রাম,

মসুর ডাল ৫০ গ্রাম,

হরীতকী মসলা (দারুচিনি, জয়ত্রী, পিপল, শাহী জিরা, সাদা গোল মরিচ, শুকনা আদা, গোলাপজল, লবঙ্গ, কাবাব চিনি ইত্যাদি মসলা স্বাদমতো মেশানো) ৫০ গ্রাম,

মেথি শাকের পাউডার,

লবণ ও হলুদ প্রয়োজনমতো।

প্রণালি:
প্রথমে সবজিগুলো কিউব করে কেটে নিতে হবে। হালকা হলুদ ও লবণ দিয়ে সেদ্ধ করে নিতে হবে। এরপর পরিমাণমতো পানি দিয়ে মসুর ডাল দিয়ে দিতে হবে। হরীতকী মসলা দিতে হবে পরিমাণমতো। এরপর দুই থেকে তিন মিনিট মাঝারি আঁচে জ্বাল দিতে হবে। এবার মেথি শাকের পাউডার দিয়ে বাগার দিয়ে নামিয়ে নিতে হবে।

কড়াই সবজি

উপকরণ:
পেঁপে ১ কাপ,
গাজর আধা কাপ,
পটোল আধা কাপ,
ঝিঙা ১ কাপ,
মাশরুম আধা কাপ,
ক্যাপসিকাম আধা কাপ,
বেবি কর্ন আধা কাপ,
মটরশুঁটি সিকি কাপ,

টমেটো টুকরা ১ কাপ,
স্বাদ লবণ ১ চা-চামচ,
মুরগির মাংস ছোট টুকরা আধা কাপ,
আদাবাটা ১ চা-চামচ,
পেঁয়াজ পাতা আধা কাপ,
রসুনবাটা আধা চা-চামচ,
কারি পাউডার ১ চা-চামচ,
তেজপাতা ১টি,
বরবটি টুকরা আধা কাপ,
ধনেপাতা কুচি ১ টেবিল চামচ,
পেঁয়াজ মোটা কুচি ১ কাপ,
তেল আধা কাপ,
কাঁচামরিচ ফালি ৫-৬টি,
দুধ পোনে ১ কাপ,
চিনি ১ চা-চামচ,
গোলমরিচ গুঁড়া ১ চা-চামচ,
সয়াসস ১ টেবিল চামচ,
লবণ পরিমাণ মতো।

প্রণালি:
সব সবজি ঝিঙা বাদে, আলাদা আলাদা করে লবণ পানিতে আধা সেদ্ধ করে নিতে হবে। মুরগির মাংস সয়াসস মাখিয়ে ২০-২৫ মিনিট রাখতে হবে। তেল গরম করে মুরগির মাংস, লবণ স্বাদ মতো, চিনি, আদা ও রসুনবাটা দিয়ে ভুনা করতে হবে। সামান্য পানি দিয়ে কষিয়ে পেঁয়াজ, কাঁচামরিচ দিয়ে কিছুক্ষণ পর সব সবজি পর্যায়ক্রমে দিয়ে অল্প আঁচে রান্না করতে হবে। কারি পাউডার ও দুধ দিয়ে কিছুক্ষণ রেখে নামাতে হবে।

সবজির অসাধারণ মুখরোচক রেসিপি

যা যা লাগবে:
টমেটো টুকরা (হাফ করে কাটা,ছোট হলে আস্ত ) ২ কাপ
নারকেল বাটা ২ টেবল চামচ
মটরশুটি ১ কাপ
পেঁয়াজ বাটা ২ টেবল চামচ
আদা বাটা ১ চা চামচ
হলুদ গুঁড়ো হাফ চা চামচ
মরিচ গুঁড়ো ২ চা চামচ ( কম বেশি করা যাবে)
ধনিয়া গুঁড়ো হাফ চা চামচ
জিরা গুঁড়ো হাফ চা চামচ
কাসুরি মেথি / শুকনা মেথি পাতা গুঁড়ো ১ চা চামচ
আস্ত সরিষা হাফ চা চামচ
নারকেল দুধ হাফ কাপ
তেল ৩ টেবল চামচ
ধনিয়া পাতা মিহি কুচি ২ টেবল চামচ
চিনি ১ চা চামচ
ভাজা শুকনা মরিচ কয়েকটা ( না দিলেও হবে)
লবণ স্বাদমত

প্রণালি:
-প্রথমে প্যানে তেল দিয়ে তেল গরম হলে এতে আস্ত সরিষা দিন।
– ফুটে উঠলে এতে বাটা মশলা দিন হালকা নাড়াচাড়া করে এতে সব গুঁড়ো মশলা দিয়ে সাথে নারকেল দুধ দিয়ে মশলা কষিয়ে নিন।
-এখন এই কষানো মসলাতে টুকরা করা টমেটো, নারিকেল বাটা, কাসুরি মেথি, চিনি ,লবণ আর হাফ কাপ পানি দিয়ে নেড়ে ঢাকনা লাগিয়ে মিডিয়াম আঁচে রান্না করুন ১০ থেকে ১২ মিনিট ।
-এবার এতে মটরশুটি আর ধনিয়া পাতা কুচি দিয়ে রান্না করুন আরো ১২ মিনিট, টমেটো নরম হয়ে ঝোল হালকা ঘন হলে নামিয়ে নিন।
– আর নামানোর আগে কয়েকটা ভাজা শুকনা মরিচ দিয়ে দিন ( না দিলেও হবে)।

সবজি-ডাল

উপকরণঃ
বুটের ডাল ২ কাপ।
বেগুন ১টি (মোটা করে কাটা)।
ক্যাপসিকাম-কুচি ১টি।
টমেটো ২টি।
মাশরুম ৩-৪টি।
কাঁচামরিচ ২টি।
হলুদগুঁড়া ১ চা-চামচ।
জিরাগুঁড়া চা-চামচের তিনভাগের একভাগ।
পেঁয়াজকুচি ১ চা-চামচ।
আদা মিহিকুচি আধা চা-চামচ।
রসুনকুচি আধা চা-চামচ।
পাঁচফোড়ন ১ চা-চামচ।
দারুচিনি ২ টুকরা।
লবণ স্বাদমতো।
তেল পরিমাণ মতো।

পদ্ধতি:
লবণ, কাঁচামরিচ, আদা, ক্যাপসিকাম-কুচি দিয়ে ডাল সিদ্ধ করতে দিন। কিছুক্ষণ পর হলুদ আর জিরাগুঁড়া দিয়ে আর একটু সিদ্ধ হতে দিন। সবজিগুলো লবণ দিয়ে মাখিয়ে প্যানে তেল দিয়ে হালকা ভেজে নিন। এবার সবজিগুলো তুলে নিন। এই প্যানে আবার সামান্য তেল দিয়ে পেঁয়াজ আর রসুনকুচি ২ মিনিট ভাজুন। তারপর দারুচিনি আর পাঁচফোড়ন দিয়ে আরও কিছুক্ষণ ভেজে গন্ধ বের হলে ডালের মধ্যে দিয়ে দিন। সবজিগুলো দিয়ে আরও কিচ্ছুক্ষণ জ্বাল দিন।

মাংসের রান্নায় সবজির স্বাদ

যা যা লাগবেঃ
মুরগির কিমা ১ কাপ
মিষ্টি কুমড়া টুকরা হাফ কাপ
আলু টুকরা হাফ কাপ
পেঁপে টুকরা হাফ কাপ
লাউ টুকরা হাফ কাপ
ঝিঙা টুকরা হাফ কাপ
পাঁচফোড়ন ২ চা চামচ
আদা ছেঁচা দেড় টেবিল চামচ
দুধ ১/৪ কাপ
ঘি ২ চা চামচ
তেল ২ টেবিল চামচ
কাঁচামরিচ কয়েকটা
লবণ স্বাদমত
ধনিয়া পাতা কুচি (পরিবেশন এর জন্য)

প্রনালিঃ
-প্রথমে হাঁড়িতে তেল দিয়ে তেল হালকা গরম হলেই এতে পাঁচফোড়ন দিয়ে দিন, ৫ সেকেন্ড পর ১ টেবিল চামচ আদা ছেঁচা দিন (এর কারণ হল পাঁচফোড়ন তেলে বেশি রাখলেই তিতা হয়ে যায় )
-এবার এতে মুরগির কিমা দিয়ে রান্না করুন ৪ থেকে ৫ মিনিত,এখন মিষ্টি কুমড়া, আলু টুকরা দিয়ে নাড়াচাড়া রান্না করুন ১০ থেকে ১২ মিনিট ।
-এখন এতে লাউ টুকরা, পেঁপে টুকরা, ঝিঙা টুকরা , বাকি আদা ছেঁচা,দুধ, হাফ কাপ গরম পানি ,কাঁচামরিচ আর লবণ স্বাদমত দিয়ে মিডিয়াম আঁচে ঢাকনা লাগিয়ে রান্না করুন আরও ১০ মিনিট।
-নামানোর আগে উপরে ঘি ছিটিয়ে দিন। পরিবেশন এর সময় ধনিয়া পাতা কুচি ছিটিয়ে দিন। পরোটা , রুটি কিংবা ভাতের সাথে পরিবেশন করুন

সবজি পেঁয়াজু

উপকরণ:
মসুর ডাল আধা কাপ,
মটর ডাল আধা কাপ,
পেঁয়াজ কুচি ১ কাপ,
গাজর কুচি সিকি ১ কাপ,
বাঁধাকপি কুচি আধা কাপ,

মটরশুঁটি কুচি সিকি ১ কাপ,
আলু কুচি সিকি কাপ,
ধনেপাতা কুচি সিকি কাপ,
কাঁচা মরিচ কুচি ২ টেবিল-চামচ,
লবণ পরিমাণমতো,
বেসন ২ টেবিল-চামচ,
পুঁইপাতা কুচি আধা কাপ।

প্রণালি:
ডাল ধুয়ে ৩-৪ ঘণ্টা ভিজিয়ে রেখে বেটে নিতে হবে। সব উপকরণ একসঙ্গে মাখিয়ে ডুবোতেলে ভাজতে হবে। গরম গরম পেঁয়াজু পরিবেশন করুন।

সবজি বিরিয়ানি

উপকরণ:
বাসমতি চাল- ৩ কাপ
আলু ১/২ কাপ
ফুলকপি ১/২ কাপ
বরবটি ১/২ কাপ
গাজর ১/২ কাপ
মটরশুঁটি ১/২ কাপ
ধনেপাতা কুচি ১/২ কাপ
কাজু বাদাম ১০ টা
টক দই ২ টেবিল চামচ
টমেটো ১ (ব্লেন্ড করে রাখুন)
মরিচ গুঁড়া ১ চা চামচ
ধনিয়া গুঁড়া ১/২ চা চামচ
জিরা গুঁড়া ১/২ চা চামচ
গরম মসলা গুঁড়া- ১ চা চামচ
আদা বাটা- ১ চা চামচ
পেঁয়াজ বাটা – ১ টেবিল চামচ
পেঁয়াজ কুচি- ১/২ কাপ
কাঁচামরিচ – ৫-৬ টা
তেল, ঘি পরিমানমত
আলু বোখারা – ৫-৬ টা
লবণ পরিমানমত
আস্ত গরম মসলা (এলাচ, দারচিনি, লবঙ্গ)
তেজপাতা – ২ টুকরা

পদ্ধতি:
সব সব্জি ভাল করে ধুয়ে কিউব করে কেটে নিন। এবার ১/২ চা চামচ লবণ দিয়ে সব্জিগুলো অল্প ঘিতে হাল্কা করে ভেজে একটি প্লেটে তুলে রাখুন।
এবার চাল ধুয়ে ছাকনিতে পানি ঝরাতে দিন। একটি বড় পাত্রে ৬ কাপ পানি ফুটান। পানি ফুটতে শুরু করলে ধুয়ে রাখা চাল দিয়ে দিন। ১/২ চা চামচ লবণ ও সব আস্ত মসলাগুলো দিয়ে ভাত ফুটিয়ে নিন। তারপর ভাত ছাকনিতে নিয়ে পানি ঝরাতে রাখুন।
যেই পাত্রে বিরিয়ানি করবেন তাতে ঘি তেল গরম করে পেঁয়াজ বাদামী করে ভেজে নিন। পেঁয়াজের মাঝে সব বাটা মসলা, গুঁড়া মসলা, ব্লেন্ড টমেটো ও লবন দিয়ে ভাল করে তেল আলাদা হয়ে আসা পর্যন্ত কষান। তারপর টক দই দিয়ে মসলার সাথে ভাল করে মিশান।
এবার কাজু বাদাম ও ভাজা সব্জিগুলো দিয়ে আস্তে আস্তে মসলার সাথে ভাল করে মিশান। অল্প পানি দিয়ে পাত্রটি ঢেকে দিয়ে ৫-৬ মিনিট বা সবজি হাল্কা নরম হওয়া পর্যন্ত রান্না করুন। তারপর অর্ধেক ধনেপাতা কুচি দিয়ে আরও ১ মিনিট
কম আঁচে রান্না করুন।
বিরিয়ানি লেয়ার করে দমে দেয়ার জন্য, অর্ধেক সব্জি পাত্র থেকে উঠিয়ে রাখুন। প্রথমে পাত্রের অর্ধেক সব্জির উপর অর্ধেক
রান্না করে রাখা ভাত দিন।
কাঁচামরিচ, আলুবোখারা, বাকি ধনেপাতাকুচি ও ভাজা পেঁয়াজগুলো ভাতের উপর বিছিয়ে দিন। তারপর বাকি সব্জিগুলো দিয়ে তার উপর সব ভাত দিয়ে দিন।
তারপর পাত্রের ঢাকনা ভাল করে আটকিয়ে দিন যেন ভাপ বের হতে না পারে। খুব অল্প আঁচে আনুমানিক ১০ মিনিট মত বিরিয়ানি দমে দিন। বিরিয়ানি হয়ে গেলে, পরিবেশন করুন।

সবজি পাবদা

উপকরণ :
পাবদা মাছ ৩০০ গ্রাম,
বরবটি ১ কাপ (মাঝারি টুকরা করা),
পেঁয়াজের ফালি আধা কাপ (মাঝারি টুকরা করা),
কাঁচামরিচ ফালি করা ৩-৪টি,
পেঁয়াজ কুচি আধাকাপ,

লবণ স্বাদ অনুযায়ী,
মরিচ গুঁড়া আধা চা চামচ,
হলুদ গুঁড়া ১ চা চামচ,
তেল পরিমাণমতো,
ধনেপাতা কুচি ২ টেবল চামচ।

প্রস্তুত প্রণালি :
প্রথমে মাছ কুটে ভালো করে পরিষ্কার করে ধুয়ে নিন। তারপর কড়াইয়ে তেল গরম করে তাতে পেঁয়াজ ও কাঁচামরিচ হালকা ভেজে একে একে সব বাটা ও গুঁড়া মসলা, স্বাদ অনুযায়ী লবণ এবং পরিমাণমতো পানি দিয়ে মসলা ভালো করে কষিয়ে নিয়ে তাতে বরবটির টুকরাগুলো দিয়ে আবার কিছুক্ষণ ঢেকে রান্না করে তার ওপর পাবদা মাছ সাজিয়ে ধনেপাতা কুচি ও পেঁয়াজের ফালি দিয়ে কিছুক্ষণ ঢেকে চুলায় রান্না করে নামিয়ে পরিবেশন করুন সবজি পাবদা।

সবজি রুটি

উপকরণ:
ময়দাঃ ২ কাপ
পানিঃ ২ কাপ
লবণঃ স্বাদমতো
তেলঃ ২ টেঃ চামচ

সবজিঃ ময়দার অনুপাতে (সবজির মধ্যে আলু, গাজর, পেঁপে, পটল, ক্যাসিকাম, কাঁচামরিচ ইত্যাদি নেওয়া যায়)

প্রণালী:
-২ কাপ ময়দা, সব সবজী ইচ্ছামত অল্প করে ছিলে পাতলা কুঁচি কুঁচি করে ধুয়ে নিতে হবে।
-কড়ায়ে ২ কাপ ( পরিমানমত পানি) পানি, লবন দিয়ে সবজী গুলো দিয়ে দিতে হবে। তেল দিয়ে দিতে হবে। পানি ফুঁটে সবজী সেদ্ধ হয়ে এলে ময়দা দিয়ে ভালো করে নেড়ে নেড়ে মিশিয়ে নিতে হবে। ভালো করে খামির করে নামিয়ে নিতে হবে।
-একটু ঠান্ডা হলে গরম অবস্থায় ভালো করে ময়ম দিতে হবে। যদি পানি লাগে তা হলে প্রযোজনে কুসুম গরম পানি দিয়ে ময়দা মাখিয়ে নিতে হবে । একদম নরম মোলায়েম হবে।
-এবারে ছোট ছোট গোলা করে পাতলা পাতলা করে রুটি বেলে নিতে হবে। খুব সাবধান রুটি হালকা ভাবে বেলতে হবে তা না হলে ছিঁড়ে যেতে পারে।
-হালকা জ্বালে রুটি ছেকে নিতে হবে। ব্যাস,হয়ে গেলো মজার ভিটামিনে ভরপুর টেস্টি সবজী রুটি।

পাঁচ মিশালী সবজি চপ

উপকরণ :
গাজর ১০০ গ্রাম,
বরবটি ১০০ গ্রাম,
আলু ৫০ গ্রাম,
কাটা কলা ১০০ গ্রাম,
বেসন ৫০ গ্রাম,
তেল ২০০ গ্রাম,
কর্নফ্লাওয়ার ২০ গ্রাম,
লবণ পরিমাণ মত,
ডিম ৩টা,
বিস্কুটের গুঁড়ো ১০০ গ্রাম।

প্রণালী :
একটি বাটিতে গাজর, বরবটি, লালশাক, পুই শাক, আলু কাটা কলা সেদ্ধ একত্রে চটকে নিন। চটকানো সবজির সাথে বেসন কর্নফ্লাওয়ার লবণ দিয়ে মাখিয়ে চপের মত করে শেপ করে নিন। ডিম ফেটে চপ ডিমে ডুবিয়ে বিস্কুটের গুঁড়োতে গড়িয়ে বাদামি করে এপিঠ ওপিঠ ভেজে তুলুন। সুন্দর করে গাজরে ফুল দিয়ে সাজিয়ে, টমেটো সসের সাথে ইফতারির টেবিলে গরম গরম পরিবেশন করুন।

সবজি কাঠি কাবাব

উপকরণ :
বরবটি আধা কাপ,
গাজর আধা কাপ,
আলু সিদ্ধ করে চটকিয়ে নেওয়া ১ কাপ,
পেঁয়াজ বেরেস্তা করা আধা কাপ,

ফুলকপি ১ কাপ,
বাঁধাকপি ১ কাপ,
শিম আধা কাপ,
ধনেপাতা ও কাঁচামরিচ কুচি ১ টেবিল চামচ (কাঁচামরিচ কুচি অল্প) গরম মসলা গুঁড়া ২ চা চামচ।
ঘি ১ চা চামচ,
ডিম ২টি ফেটানো,
বিস্কুটের গুঁড়া পরিমাণমতো
ভাজার জন্য তেল।
বাঁশের কাবাব কাঠি ৫-৬টি,
লবণ স্বাদ অনুযায়ী।

প্রস্তুত প্রণালি :
সব সবজি সামান্য লবণ ও পরিমাণমতে পানিসহ সিদ্ধ করে নিন কিছুক্ষণ। তারপর সবজির পানি ঝরিয়ে রাখুন। সব সবজি স্বাদ অনুযায়ী লবণসহ ব্লেন্ডারে ব্লেন্ড করুন। এরপর কুচি করা ধনেপাতা, কাঁচামরিচ, পেঁয়াজ বেরেস্তা, ঘি, কর্নফ্লাওয়ার, গরম মসলা গুঁড়া মাখিয়ে কিছুক্ষণ রাখুন ফ্রিজে। তারপর কাঠিতে সবজির মিশ্রণ লম্বা করে কাবাবের মতো করে মাখিয়ে নিন। কাবাব ফেটানো ডিমের মিশ্রণে মাখিয়ে এরপর বিস্কুটের গুঁড়া গড়িয়ে নিন। গরম গরম ডুবন্ত তেলে ভেজে পরিবেশন করুন সবজি কাঠি কাবাব।

নিয়মিত আপডেট পেতে লাইক দিয়ে আমাদের সাথে থাকুন