গ্লুকোমার আশঙ্কা কমায় লাল চা

নিয়মিত চিনি ছাড়া লাল চা পান করলে চোখে গ্লুকোমা হওয়ার আশঙ্কা অনেক কমে যায়।ইতোমধ্যে যারা গ্লুকোমায় আক্রান্ত হয়েছেন তারাও সুফল পেতে পারেন।যদিও বিতর্ক রয়েছে লাল চা ভাল না, দুধ চা ভাল এই নিয়ে।

তবে সম্প্রতি এক গবেষণা শেষে বলা হয়েছে, চিনি ছাড়া লাল চা শরীরের জন্য দারুন উপকারী। এটি চোখ ভাল রাখতে সহায়তা করে। সেই সঙ্গে চোখের নানা ধরনের সমস্যা দূর করে।

গবেষণা বলছে, সকালে চিনি ছাড়া এক কাপ চা খেলে শরীর চাঙ্গা হয়ে ওঠে, শক্তিও পাওয়া যায়। কারণ লাল চায়ে রয়েছে ক্যাফেইন,কার্বোহাইড্রেট, পটাশিয়াম,মিনারেল,ফ্লোরাইড,ম্যাঙ্গানিজ ও পলিফেনল । এছাড়াও অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট,ট্যানিন,গুয়ানিন,এক্সাথিন,পিউরিনও পাওয়া যায় এতে। বিশেষজ্ঞরা বলছেন, যারা দিনে একবার করে লাল চা পান করেন তাদের চোখে গ্লুকোমা হওয়ার আশঙ্কা শতকরা ৭৪ ভাগ কমে যায়।

যুক্তরাষ্ট্রের ইউনিভার্সিটি অফ ক্যালিফোর্নিয়ার গবেষক দল লাল চা এবং গ্লুকোমা’র দারুণ যোগসূত্র খুঁজে পেয়েছেন। তবে গ্লুকোমার ঝুঁকি কমাতে লাল চায়ের কার্যকারিতার প্রাথমিক প্রমাণ মিললেও তা নিয়ে আরও গবেষণার প্রয়োজন বলে মনে করছেন তারা।

এই প্রসঙ্গে লণ্ডনের কিংস কলেজের এক অধ্যাপক ক্রিস হ্যামণ্ড বলেছেন, চায়ের মধ্যে থাকা অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট এবং অন্যান্য উপাদান আমাদের শরীরের জন্য দারুন উপকারী। আর বয়সের সঙ্গে সঙ্গে চোখে গ্লুকোমা হওয়া এখন পরিচিত সমস্যা হয়ে দাঁড়িয়েছে। এর কারণে অন্ধত্বের সংখ্যাও বাড়ছে। এই ধরনের আবিষ্কার নিঃসন্দেহে সবার উপকার করবে।
গবেষকরা বলছেন, গ্লুকোমা রোগে আক্রান্ত হলে চোখের ভেতরে চাপ বাড়তে শুরু করে। ফলে,অপটিক নার্ভ ক্ষতিগ্রস্ত হতে থাকে। দৃষ্টিশক্তি কমতে শুরু করে। লাল চায়ের অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট,অ্যান্টিইনফ্লেমেটরি প্রপাটিজ এবং নিউরো প্রোটেকটিভ কেমিক্যাল চোখ ভাল রাখতে সাহায্য করে।

চোখ ছাড়াও চিনি ছাড়া লাল চা হজমশক্তি বাড়ায় ,ক্যানসারের ঝুঁকি কমায়, মস্তিষ্কের ক্ষমতা, রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায়। বিশেষজ্ঞরা বলছেন, ওজন কমাতে এবং ত্বকের সৌন্দর্য বাড়াতেও লাল চা কার্যকরী ভূমিকা রাখে।

নিয়মিত আপডেট পেতে লাইক দিয়ে আমাদের সাথে থাকুন