মুগ ডালের পাকান বা ডালের নকশী পিঠা রেসিপি

খেতে খুবই মজা পাকান পিঠা। অনেকেই হয়তো খেতেছেন আবার অনেই আছেন যারা এই পিঠার ভক্ত। তবে রেসিপি জানা না থাকায় খেতে পারছেন না পছন্দের পিঠাটি। তাই আজ আপনাদের দিচ্ছে মুগ ডালের পাকান বা ডালের নকশী পিঠা রেসিপি। তাহলে জেনে নিন রেসিপিটি।
উপকরণ

মুগ ডাল – ৩/৪কাপ ( ৪ ভাগের ৩ ভাগ)

মুসুরির ডাল – ১/৪ কাপ

চালের আটা – পরিমান মত

লবন – সামান্য

হলুদ- খুবই সামান্য (কালারের জন্য)

সিরার জন্য

চিনি – স্বাদ অনুযায়ী

পানি – পরিমান মতো

এলাচ- ২-৩ টি

– সব এক সাথে জ্বাল দিন।

– সিরাটা পাতলাও হবেনা আবার ঘনও হবে না ।

– চালের অন্যান্য পিঠাতে সিরা যে ভাবে করতে হয় সেভাবে করলেই হবে।
প্রণালী

– ডাল ধুয়ে চালের আটা বাদে সব উপকরন প্রেশার কুকারে দিয়ে দিন ।

– পানি হাতের তিন কর পরিমানে দিতে হবে ।

– কয়েকটি শিটি দেয়ার পরে ডাল সিদ্ধ হয়ে গলে গেলে চালের আটা দিয়ে দিন ।

– ডাল গলে না গেলে আরো কয়েকটি শিটি দিন ।

– ডো টা চালের আটার রুটির মতো হবে । বেশি নরম হবে না ।

– জ্বাল অল্প আঁচে রেখে ভাল করে মিক্স করে কিছুক্ষন ঢেকে রাখুন ।

– ৪-৫ মিনিট পরে নামিয়ে ঠাণ্ডা করে নিন ।

– খুব ভাল করে ময়ান দিন ।

– ভাল করে মিক্স করা হয়ে গেলে পিড়িতে মোটা করে রুটি বেলে নিন।

– এবার নিচের পছন্দ মতো শেপে কেটে খেজুরের কাটা , সুই বা কাঠি দিয়ে ভিতরে ফুল লতাপাতা এঁকে নিন । এবার এই ফুল পাতা খুচিয়ে খুচিয়ে পাপড়ি তুলুন বা খুচিয়ে দিন ।

– এভাবে করলে ভাল ভাবে ভাজা হয় আর পিঠা মচমচা হয় ।

– এবার ডূবো তেলে মাঝারি আঁচে হালকা বাদামি কালার করে ভেজে নিন ।

– সিরা কুসুম গরম করে নিয়ে তাতে কয়েকটি পিঠা এক সাথে ছেড়ে কিছুক্ষন রেখে দিন ।

– কিছু সময় পরে একটি ছাকনির উপরে পিঠা গুলো তুলে রাখুন । এতে করে বাড়তি সিরা ঝরে যাবে ।

– এবার ঠাণ্ডা করে এয়ার টাইট বক্সে ভরে রেখে দিন । তাহলে বেশ কয়েক ঘন্টা মুচমুচা থাকবে ।
টিপস

*হলুদ দিতে না চাইলে । সামান্য হলুদ ফুদ কালার বা জাফরান দিতে পারেন।

পরিবেশন
গরম গরম পরিবেশন করুন ।

নিয়মিত আপডেট পেতে লাইক দিয়ে আমাদের সাথে থাকুন