পেঁপে খাবেন না যারা

পেঁপে খেতে যেমন সুস্বাদু তেমনি হাজারো রোগের প্রকোপ কমাতে এই রোগটি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে থাকে। শরীরকে সুস্থ রাখতে এই ফলটির কোনো বিকল্প হয় না বললেই চলে। তবে কারও কারও ক্ষেত্রে এই সুস্বাদু, স্বাস্থ্যকর ফলটিই ক্ষতির কারণ হয়ে দাঁড়াতে পারে। বিশেষ কিছু রোগে আক্রান্ত রোগীরা পেঁপে খেলে শারীরিক অবস্থার অবনতি হওয়ার আশঙ্কা থাকে। এ নিয়ে বেশিরভাগ মানুষেরই এ বিষেয় জ্ঞান নেই। ফলে অজান্তেই তারা নিজেদের ক্ষতি করে বসেন।

১০০ গ্রাম পেঁপেতে প্রায় ৪৩ ক্যালোরি থাকে, ভিটামিন সি থাকে প্রতিদিনের মোট চাহিদার প্রায় ৭৫ শতাংশ ভিটামিন, ফলেট থাকে প্রায় ১০ শাতংশ। এছাড়াও এতে রয়েছে অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট সহ আরও সব পুষ্টিকর উপাদান। এক কথায় পুষ্টির ভাণ্ডার হলো পেঁপে। তবু কিছু মানুষের ক্ষেত্রে এই ফলটি ক্ষতি ছাড়া ভাল করে না। কাদের ক্ষেত্রে সাধারণত এমনটা হয়ে থাকে?

প্রেগন্যান্সি

গর্ভাবস্থায় পেঁপে খাওয়া এবারেই চলবে না। কারণ পেঁপেতে উপস্থিত বেশ কিছু উপাদান নানাভাবে মিসক্যারেজের আশঙ্কা বৃদ্ধি করে।

শ্বাস কষ্ট যাদের

অ্যালার্জির কারণে যাদের প্রায়শই শ্বাস কষ্ট হয়ে থাকে, তাদের ভুলেও পেঁপে খাওয়া চলবে না। কারণ এতে উপস্থিত প্য়াপিন নামে একটি উপাদান শরীরে প্রবেশ করা মাত্র শ্বাস কষ্টের আশঙ্কা বৃদ্ধি করে।

কিডনির পাথরেে আশঙ্কা বৃদ্ধি করে

কোনও কিছুই বেশি পরিমাণে শরীরে প্রবেশ ভাল নয়, তা সে পুষ্টিকর উপাদানই হোক না কেন! এক্ষেত্রেও কিন্তু একই ঘটনা ঘটে। পেঁপেতে প্রচুর মাত্রায় ভিটামিন সি রয়েছে। এই পরিমাণ ভিটামিন প্রায় দিনই যদি শরীরে প্রবেশ করতে শুরু করে, তাহলে দেহে ভিটামিন সি-এর পরিমাণ মাত্রাতিরিক্ত হারে বৃদ্ধি পায়। আর এমনটা হলে কিডনিতে পাথর হওয়ার আশঙ্কা বৃদ্ধি পায়।

পুরুষদের ফার্টিলিটি হ্রাস পায়

আপনি কি বাবা হওয়ার পরিকল্পনা করছেন? তাহলে বেশি মাত্রায় পেঁপে খাওয়া বন্ধ করুন। কেন? আসলে এই ফলটিতে উপস্থিত বেশ কিছু এনজাইম স্মার্প কাউন্ট কমিয়ে দেয়। ফলে ফার্টালিটি কমে যাওয়ার সম্ভাবনা থাকে।

নানা ধরনের পেটের রোগ হয়

পেঁপেতে উপস্থিত প্য়াপিন স্টামাকের কর্মক্ষমতা কমিয়ে দেয়। ফলে নানা ধরনের পেটের রোগে হওয়ার আশঙ্কা বৃদ্ধি পায়। অল্প খেলে কোনও সমস্যাই হয় না। কিন্তু বেশি মাত্রায় খেলেই দেখা দেয় এই সব রোগ।

ত্বকের রোগ হয়

যারা ক্য়ারোটেনিমিয়া নামক ত্বকের রোগে আক্রান্ত তাদের পেঁপে খাওয়া একেবারেই চলবে না। কারণ এতে উপস্থিত ভিটামিন- এ এই ধরনের স্কিন প্রবলেমকে আরও বাড়িয়ে দেয়।

শকর্রার মাত্রা কমিয়ে দেয়

রক্তে সুগার লেভেল বেড়ে যাওয়াটা যেমন ভাল নয়, তেমনি বেশি মাত্রায় কমে যাওয়াটাও কিন্তু ক্ষতিকর। তাই তো নাত্রাতিরিক্ত পরিমাণে পেঁপে খাওয়া একেবারেই উচিত নয়। কারণ এই ফলটি শর্করার মাত্রা নিমেষে কমিয়ে দেয়। ফলে হঠাৎ করে অসুস্থ হয়ে পরার সম্ভবনা বেড়ে যায়।

নিয়মিত আপডেট পেতে লাইক দিয়ে আমাদের সাথে থাকুন