ঋণ থেকে মুক্তি পাওয়ার সর্বশ্রেষ্ঠ দোয়া-চিন্তা মুক্তির পরীক্ষিত দোয়া

আমি আপনাদের জন্য একটি গুরুত্তপূর্ণ লেখা নিয়ে উপস্থিত হয়েছি যে লেখার মধ্যে খুব মূল্যবান দোয়া উল্লেখ করে দিয়েছি। পেরেশানী ও চিন্তা মুক্তির পরীক্ষিত দোয়া , ঋণ থেকে মুক্তি পাওয়ার সর্বশ্রেষ্ঠ দোয়া।

এই লেখটি সেই সব লোকদের জন্য খুব উপকারে আসবে যারা অনেক ঋণ গ্রস্থ এবং ঋণের কারণে চিন্তিত ঋণ আদায় করতে পারছেন না। ঋণ আদায় করতে অক্ষম হয়ে গেছেন। আমি যেই দোয়াটি আপনাদের জন্য উল্লেখ করেছি এই দোয়াটির আমল নিয়মিত করতে হবে এবং মনে বিশ্বাস রাখতে হবে তাহলে অবশ্যই আপনারা এই দোয়াটির ফলাফল পাবেন এই দোয়াটি পরীক্ষিত একটি দোয়া। তাহলে আসুন আগে হাদীসটি জানি তার পরে কিভাবে আমল করতে হয় তা শিখিয়ে দিব। আসুন শুরু করি…

অর্থ: রাসুলুল্লাহ সা. একদিন মসজিদে নববীবির ভিতরে ঢুকলেন। ঢুকেই দেখলেন একজন সাহাবী মসজিদে নববীর ভিতরে আছে।যেই সাহাবীর নাম আবু উমামাহ (রা.)। অতপর আল্লাহর রাসুল (সা. ) তার কাছে জানতে চাইলেন তুমি এই সময় মসজিদে কেন? এখন তো নামাজের সময় না।

হযরত আবু উমামাহ রা. বললেন, ইয়া রাসুলুল্লাহ! আমাকে আমার অনেক চিন্তা ও ঋণ এই সময়ে মসজিদে আসতে বাধ্য করেছে। রাসুলে কারীম সা. বললেন, তোমাকে কি আমি একমন একটি দোয়া শিখাবো না!

যে দোয়া পাঠ করলে আল্লাহ রাব্বুল আলামিন তোমার চিন্তাসমূহ দুরভিত করে দিবেনও তোমার সব ঋণ আদায় করার তাওফিক দিবেন। হযরত আবু উমামাহ রা. বললেন, অবশ্যই ইয়া রাসুলুল্লাহ আপনি আমাকে শিখিয়ে দিন। আবু উমামাহ রা. বলেন আল্লাহর রাসুল সা. আমাকে বললেন তুমি সকালে এবং সন্ধায় এই দোয়াটি পাঠ করবে :

اللَّهُمَّ إِنِّي أَعُوذُ بِكَ مِنْ الْهَمِّ وَالْحَزَنِ، وَأَعُوذُ بِكَ مِنْ الْعَجْزِ وَالْكَسَلِ، وَأَعُوذُ بِكَ مِنْ الْجُبْنِ وَالْبُخْلِ، وَأَعُوذُ بِكَ مِنْ غَلَبَةِ الدَّيْنِ، وَقَهْرِ الرِّجَالِ

উচ্চারণ : আল্লা-হুম্মা ইন্নী আউযু বিকা মিনাল হাম্মি ওয়াল হাযান, ওয়া আ‘ঊযু বিকা মিনাল-‘আজযি ওয়াল-কাসাল, ওয়া আ‘ঊযু বিকা মিনাল-বুখলি ওয়াল-জুবন, ওয়া আ‘ঊযু বিকা মিন গালাবাতিত দায়নি ওয়া কহরির- রিজাল।

তারপর হযরত আবু উমামাহ রা. বলেন আমি এই দোয়াটির উপর আমল করলাম আল্লাহ তায়ালা আমার থেকে চিন্তা-পেরেশানি দূর করে দিলেন এবং আমাকে ঋণ পরিশোধ করার ব্যবস্থা করে দিলেন।

সন্মনিত পাঠক এই হাদীস থেকে আমরা জানতে বুঝতে পেরেছি যে, এই দোয়াটি এই নিয়মে পাঠ করলে আল্লাহ রাব্বুল ইজ্জত আমাদের থেকেও চিন্তা-পেরেশানি দুরভিত করে দিবেন এবং ঋণ পরিশোধের ব্যবস্থা করে দিবেন। যেমনি ভাবে আবু উমামার রা. চিন্তা-পেরেশানি আল্লাহ তায়ালা দূর করে দিয়েছেন। তাবে অবশ্যই সকালে এবং সন্ধায় এই দোয়াটি নিয়মিত পাঠ করতে হবে এবং মনে অব্যশই বিশ্বাস থাকতে হবে। তাহলে উপকারে আসবে ইনশাআল্লাহ।

নিয়মিত আপডেট পেতে লাইক দিয়ে আমাদের সাথে থাকুন