এলোভেরা সাবান তৈরি করার পদ্ধতি

স্বাগতম আজকের সম্পূর্ণা ২৪ এর টিপস সেকশনে। এই সেকশনে দৈনন্দিন কাজ সহজ করে দেয় এমন অনেক টিপস সেয়ার করা হয়ে থাকে। আজও তেমন একটি টিপস নিয়ে হাজির হয়েছি। আসা করি ভালো লাগবে আপনাদের

নানা কাজের কাজী এলোভেরা। অ্যালোভেরা’র বাংলায় ঘৃতকুমারী নামে পরিচিত। এলোভেরা একটি শাসযুক্ত উদ্ভিদ। এলোভেরা গাছের গড় উচ্চতা ৬০-১০০ সেন্টিমিটার। এর পাতা ১০-২০ ইঞ্চি পর্যন্ত লম্বা হতে পারে। এলোভেরার পাতার দেখতে অনেকটাই চ্যাপ্টা আকৃতির এবং পাশে কাটা থাকে। এলোভেরার নানা রকম উপকারিতা রয়েছে। যাদের ত্বক তৈলাক্ত তাদের জন্য বিশেষ উপকারি এই এলোভেরা। হৃদযন্ত্র, স্নায়ুতন্ত্র, মুখের ঘা, পেটের পীড়া রোগের নিরাময় সহ রূপচর্চায় ব্যবহৃত হয়ে আসছে এলোভেরা।

বর্তমানে রুপচর্চায় সকলেই বেশ সচেতন। যাদের ত্বক তেলতেলে তারা এলোভেরা এর জেল ব্যবহার করে বেশ উপকার পেয়ে থাকেন। তবে সমস্যা হলো এই এলোভেরা জেল বেশি দিন ভালো থাকে না। তাই আজ বিডি সংসার এর আয়োজনে থাকছে এলোভেরা জেল দিয়ে সাবান তৈরি করার প্রণালী। আশা করি বিডিসংসার এর পাঠকদের উপকারে লাগবে। তাহলে দেরি না করে আসুন জেনে নেই কিভাবে তৈরি করবেন এলোভেরা জেল এর সাবান।

বাসায় এলোভেরা সাবান তৈরি করতে লাগছে – ১টি বড় গ্লিসারিন সাবানের অর্ধেকটা (আমি পেয়ার্স সাবান নিয়েছি)। সাথে লাগছে মাঝারি আকারের একটি লেবু। আর লাগছে মাঝারি আকারের একটি এলোভেরা পাতা।

একটি ছোট গ্রেটারের সাহায্যে সাবানটি গ্রেট করে নিন। চাইলে ছোট ছোট টুকরা করে কেটেও নিতে পারেন। কাটা হয়ে গেলে এটি সাইডে রেখে দিন। এবার লেবুটির সবুজ খোসা একটি গ্রেটারের সাহায্যে গ্রেট করে নিন। একটি বাটিতে এলোভেরা জেলটি আলাদা করে নিন।
এলোভেরা (Aloe vera) সাবান তৈরি

একটি স্টিলের বাটি নিয়ে নিন। এবার এই বাটিতে গ্রেট করে রাখা সাবান দিয়ে দিন। এবার একটি ফ্রাইপ্যানে পানি নিয়ে নিন। তার উপর বাটিটি বসিয়ে নিন। চুলায় জ্বাল দিন। ২-৩ মিনিট পরে সাবান গলে যাবে। এসময় দিয়ে দিন এলোভেরা জেল। ৪টেবিল চামচের মতন এলোভেরা জেল দিবেন। এবার দিয়ে দিন লেবুর খোসা। চামচ দিয়ে ভালো করে নেড়ে আরও ২-৩ মিনিট জ্বাল দিন।

নতুন নতুন দারুন সব টিপস ও রেসিপি জানতে নিয়মিত ভিজিট করুন বিডি সংসার এর ওয়েবসাইট। আর শেয়ার করে জানিয়ে দিন আপনাদের বন্ধুদের।

এবার সাবানের আকার দেওয়ার জন্য একটি ওয়ানটাইম গ্লাস নিয়ে নিন। এই গ্লাসের ভিতরে সামান্য পেট্রোলিয়াম জেলি মাখিয়ে নিন। তাতে সাবান সহজে উঠে আসবে। সাবানটি হয়ে এলে পাত্রে ঢেলে দিন। ১ঘন্টার জন্য রেখে দিন। এর পর সাবানটি শক্ত হয়ে জমে যাবে। ব্যাস তৈরি হয়ে গেলো এলোভেরা এর সাবান। এলোভেরা সকল ধরনের ত্বকেই উপকারী। তাই আশা করি আপনারা বাসায় তৈরি করবেন আর উপকার পেলে অবশ্যই আমাদের জানাতে ভুলবেন না।
আপনি এই এলোভেরা দিয়ে আরও যা করতে পারবেন

এলোভেরা মুখে ব্যবহারের নিয়ম কানুন সম্পর্কে জানুন

– এলোভেরা সরাসরি মুখে ব্যবহার করতে পারেন এটি একদম প্রাকৃতিক উপাদান তাই এতে কোন সাইড এফেক্ট নেই বললেই চলে।

এলোভেরা দিয়ে মুখের যত্ন নেওয়ার নিয়ম কানুন

– প্রতিদিন এলোভেরা এর ভিতরের অংশ অর্থাৎ এলোভেরা জেল দিয়ে মুখ ধুতে পারেন, এতে আপনার ব্রণ, ত্বকের দাগ ও র‍্যাস দূর হবে। ত্বক হবে আরও উজ্জ্বল।

এলোভেরা ফেসিয়াল করার প্রনালী

– প্রথমে একটি চামচ বা ছুরির সাহায্যে এলোভেরা জেল বের করে নিন। এবার এই জেল দিয়ে ভালো করে ত্বকে লাগিয়ে ঘষে ঘষে পরিস্কার করুন। ১০ মিনিট পর ঠান্ডা পানি দিয়ে ত্বক ধুয়ে ফেলুন।

এলোভেরা জেল এর অপকারিতা সম্পর্কে জানুন

– এলোভেরা জেল এর তেমন কোন অপকারিতা নেই। এটি একটি প্রাকৃতিক উপাদান। তবে অনেকের এলোভেরাতে এলার্জি এর সমস্যা থাকতে পারে। তাই তারা এটি ব্যবহার করা থেকে বিরত থাকবেন।

এলোভেরার ক্ষতিকর দিক আছে কি?

– এলোভেরা এর কোন ক্ষতিকর দিক নেই। তবে এলোভেরায় এলার্জি জনিত সমস্যা থাকলে এড়িয়ে চলার পরামর্শ রইলো।

এলোভেরা জেল কোথায় পাওয়া যায়

– বাজারে ১০-১৫টাকায় এলোভেরা এর পাতা কিনতে পাওয়া যায়। তাছাড়া বিভিন্ন কসমেটিক্স এর দোকানে বিভিন্ন ব্র্যান্ডের এলোভেরা জেল পেয়ে যাবেন। এর ভিতরে পতঞ্জলি এলোভেরা জেল বেশ জনপ্রিয়।

দেখুন ভাইরাল বিজ্ঞাপন ভিডিও