অ্যাভোকাডো খাওয়ার সময় যে কাজটি ভুলেও করবেন না

অ্যাভোকাডো আমাদের দেশেও পরিচিত হয়ে উঠেছে ইদানিং। একে মূলত স্বাস্থ্যকর ফ্যাটের উৎস হিসেবে খাওয়া হচ্ছে। অ্যাভোকাডো কেনার পর তা খাওয়ার সময়ে অনেকেই চিন্তিত হয়ে পড়েন, ভাবেন কী করে তা রান্না করা যায়? আসলে কিন্তু অ্যাভোকাডো রান্না করা মানে তার স্বাদটা নষ্ট করে ফেলা। অ্যাভোকাডো কোনো রকম রান্না বা তাপ না দিয়ে কাঁচাই খাওয়া উচিত।

অ্যাভোকাডোর স্বাদ সবচেয়ে ভালো পাওয়া যায় তা কাঁচা খেলে, বেক করে, রোস্ট করে বা ভেজে নয়। অ্যাভোকাডোকে যত লম্বা সময় তাপ দেওয়া হয়, ততই তার মোলায়েম, ক্রিমি স্বাদটা নষ্ট হয়ে যায়। গরমে তা ভর্তা হয়ে যায় ও এর রঙ বাদামী হয়ে পড়ে, তা খেলে আর স্বাদ পাওয়া যায় না।

তাহলে কী করে খাবেন অ্যাভোকাডো? শুধুই টুকরো করে কেটে সালাদের সাথে পরিবেশন করতে পারেন। তাপ দিতে চাইলে খুব হালকা করে একে গ্রিল করতে পারেন। আর একটু মুচমুচে খাবার খেতে চাইলে একে টেম্পুরা ব্যাটারে ডুবিয়ে ডিপ ফ্রাই করে নিতে পারেন খুবই কম সময়ের জন্য। এতে বাইরের অংশটা মুচমুচে থাকবে, আর ভেতরটা থাকবে নরম। তবে তাপ দিতে চাইলে অবশ্যই পাকা অ্যাভোকাডো ব্যবহার করবেন না। একটু কাঁচা রয়ে গেছে এমন অ্যাভোকাডো ব্যবহার করা উচিত।

কী করে বুঝবেন অ্যাভোকাডোটি পাকা কিনা? কাঁচা অ্যাভোকাডোর বাইরেটা সবুজ হয়ে থাকে। আর যেগুলোর রঙ কালচে হয়ে এসেছে সেগুলো পাকা। এছাড়া অ্যাভোকাডো হাতের তালুত নিয়ে আলতো করে চাপ দিতে পারেন। যদি নরম মনে হয় তাহলে বুঝতে পারবেন তা পেকে গেছে।

আপনি যদি অ্যাভোকাডো দিয়ে সালাদ তৈরি করতে চান তাহলে মোটামুটি নরম কিন্তু গলে যায়নি এমন পাকা অ্যাভোকাডো দরকার। আর গুয়াকামোল (অ্যাভোকাডো চটকে তৈরি করা একটি খাবার) তৈরির জন্য একেবারে পাকা অ্যাভোকাডো ব্যবহার করতে পারেন।

ভুলে যদি কাঁচা অ্যাভোকাডো কিনেও ফেলেন তাহলে তা বাসায় রেখে পাকিয়ে নিতে পারেন। একদম কাঁচা অ্যাভোকাডো ৪-৫ দিনে পেকে যাবে। দেরি করতে না চাইলে একটি ব্রাউন পেপার ব্যাগে একটা আপেল আর একটা কলার সাথে অ্যাভোকাডোটিকে রেখে দিন। একদিনেই পেকে যাবে।

 

প্রশ্ন-উত্তরে অংশগ্রহণ করে অর্থ উপার্জন জন্য এখানে নিবন্ধন করুন, বিস্তারিত জন্য এখানে প্রবেশ করুন